Dolancer-এর প্রতারণা থেকে সাবধান! (www.techtunes.com.bd) অবলম্বনে

Advertisement -
আউটসোর্সিং-এর বিষয়ে যাঁরা খোঁজখবর রাখেন তাঁরা আশা করি Dolancer-এর নাম শুনেছেন। দেশের ছোট-বড় শহর থেকে শুরু করে গঞ্জে-গ্রামেও পৌঁছে গেছে এরা। আপনার ভাই-বন্ধু কেউ না কেউ নিশ্চয়ই Dolancer থেকে টাকা কামাচ্ছেন, আর আপনাকে বারবার তাগিদ দিচ্ছেন একটা একাউন্ট খোলার জন্যে। এরকম যদি হয়ে থাকে তাহলে আপনাকে সাবধান করে দিচ্ছি। ডুল্যান্সারে চলছে বড় ধরণের প্রতারণা। আবার বলছি, ডুল্যান্সারে প্রতারণা চলছে! এর মাধ্যমে কেউ কেউ হয়তো টু-পাইস কামাচ্ছেন, কিন্তু সেটা কেমন আর কতোটা সন্তোষজনক আপনি জানেন? কতজন বিমুখ হয়েছে সে খবর কে রাখে! আপনাকে খুলে বলি চলুন।
সদস্য ফিঃ
এরা নিজেদের পরিচয় ফ্রিল্যান্সিং সাইট হিসেবে। দুনিয়ার সবচেয়ে বড় ফ্রিল্যান্সিং সাইটগুলো হল oDesk.com, Freelancer.com, Guru.com, eLance.com ইত্যাদি। আপনি এখনই গিয়ে খোঁজ নিয়ে আসুন, এই সাইটগুলোর কোনটাতেই সদস্য হতে টাকা লাগে না। অথচ এই Dolancer-এ সদস্য হতে আপনাকে দিতে হবে ১০০ ডলার, যার ১০ ডলার সদস্য হওয়ার সময় আর বাকি ৯০ ডলার তিন মাসে সমান কিস্তিতে। এই লাইনটি মনে রাখুন।
বয়স ১২ বছরঃ
ডাহা একটা মিথ্যা কথা। এই সাইটের ডোমেইন কেনা হয়েছে GoDaddy থেকে, রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছে ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১১ তারিখে। হালনাগাদ করা হয়েছে গত ২৭ সেপ্টেম্বর তারিখে। হোস্টিং কেনা হয়েছে SoftLayer নামক সস্তা একটি প্রতিষ্ঠান থেকে। ডোমেইন নাড়ি-নক্ষত্রের লিংক http://who.godaddy.com/whois.aspx?domain=dolancer.com&prog_id=GoDaddy
এটি আমেরিকান কোম্পানিঃ
আবার মিথ্যাচার। এই কোম্পানির জন্ম হয়েছে ঢাকার মিরপুরের জনৈক ব্যক্তির ঔরসে। তবে ইনি সম্ভবত আমেরিকায় থাকেন। আরেকটা বিষয় ভাবুন, সদস্য ফি ১০০ ডলার। অথচ সেটা নেওয়া হয় বাংলাদেশি টাকায় ৭০০০ টাকা। ইউএস ডলাদের বর্তমান বাজার দর ৭৪-৭৫ টাকা, সেই হিসেবে ১০০ ডলার হওয়ার কথা ৭৪০০-৭৫০০ টাকা! বাকি টাকা কি সাহেব তার পকেট থেকে দেন? আরেকটা বিষয়, এই সাইটের ৯৯.১% ভিজিটর বাংলাদেশ থেকে!
রোকন ইউ আহাম্মদ বাংলাদেশি এজেন্টঃ
এই ব্যক্তির কথাই বলছিলাম। ইনিই মিরপুরের কৃতি সন্তান। ডুল্যান্সাররা দাবী করেন রোকন সাহেব এই ডুল্যান্সারের বাংলাদেশ অফিসের প্রধান। ইনি কি আমেরিকা থেকে বাংলাদেশ অফিস চালান? রোকন সাহেবের অস্তিত্বের ব্যাপার বলি। এই ডুল্যান্সারের ফেইসবুক ফ্যানপেইজে যান (http://www.facebook.com/dolancerinc) পেইজের বাম দিকে নিচে দেখবেন Likes-এর নিচে Rokon U. Ahammed. এটার অর্থ আশা করি জানেন। রোকন ইউ আহাম্মেদ-এর একটি ফ্যানপেইজ আছে, আর ডুল্যান্সার ফ্যান পেইজের এডমিনের একমাত্র পছন্দ রোকন সাহেবের ফ্যান পেইজই! কতোটা আপন সম্পর্ক ভাবুন! ব্যক্তিগত ইচ্ছে থাকলে রোকন ইউ আহাম্মেদ সম্পর্কে খোঁজ নিতে পারেন।
আয়-রোজগারঃ
আপনাকে দৈনিক ১০০টি (সম্ভবত) লিংক/এড দেওয়া হবে। আপনি সেই লিংকগুলোতে ক্লিক করবেন। প্রত্যেক ক্লিকে পাবেন ১ সেন্ট, ১০০ ক্লিকে ১ ডলার। সেই হিসেবে মাসে ৩০ ডলার, সেটা দিয়ে আপনি আপনার এক মাসের কিস্তি শোধ করবেন। ৩ কিস্তি শোধ করার পর আপনি নিজের পকেটে টাকা তুলতে পারবেন। থাকবে আপনার ধৈর্য? এই পিটিসি’র কাজই যদি করতে চান, অন্য কোনও বিশ্বস্ত সাইটে গিয়ে করুন। আজ থেকেই আপনার পকেটে টাকা আসা শুরু হবে।
সাইটের কাজের পরিসংখানঃ
এটি হচ্ছে The world's largest outsourcing
& Website leasing marketplace! অথচ এখন পর্যন্ত তাদের সদস্য সংখ্যা ৪৫২৬৮, প্রোজেক্ট আছে ৩১টি আর এখান থেকে সম্পন্ন হওয়া প্রোজেক্টের সংখ্যা শূন্য (জ্বি, ঠিকই দেখেছেন!)। সদস্যরা মোট আয় করেছেন ৫৯৮১০৫.৫০ ডলার, এই অংকটা অবশ্য খারাপ না!
সাইটের অবস্থাঃ
Freelancer.com-এর সাথে যাঁরা পরিচিত তাদের কাছে Dolancer-এর চেহারাটা চেনা মনে হবে! যখন ডুল্যান্সার জন্ম নেয়, তখন Freelancer.com-এর ঠিক এরকমই চেহারা ছিল। শুধু রঙের একটু তারতম্য!
এই সাইট কোড-ইগনিটার পিএইচপি ফ্রেমওয়ার্কে করা হয়েছে। যাঁরা জানেন, তাঁরা ঘটনা আঁচ করেছেন। সাইটের SQL ইনজেক্ট করা যায়! কয়েকটি লিংক দেখলে কিছুটা বুঝতে পারবেন।
লিংক একঃ http://dolancer.com/index.php/project/viewAllProjects/flag, পেইজের এক জায়গায় পাবেন
A PHP Error was encountered
Severity: Notice
Message: Undefined variable: pName
Filename: project/viewAllProjects.php
Line Number: 20

লিংক দুইঃ http://dolancer.com/index.php/project/viewAllProjects/0 দেখুন, জগাখিচুড়ি!
লিংক তিনঃ http://dolancer.com/?keyword=&c=search&category=&group1=Providers এই পেইজ লোড হয় না।
লিংক চারঃ http://dolancer.com/?keyword= একই কেইস।
লিংক পাঁচঃ http://dolancer.com/index.php/about লিংকের পুরোটা খেয়াল করুন, একটা সাইটের লিংক কখনো এরকম হয়?
বড় গলার গল্পঃ
আমি একজনকে এই কথাগুলো বলেছিলাম। উত্তরে তিনি আমাকে অনেকগুলো নীতিকথা শুনিয়েছিলেন। আমি যেন মন থেকে এইসব চিন্তা বের করে ফেলি, এর মাধ্যমে বেকার সমস্যা দূর হচ্ছে, এসব বলাতে তাঁর কোনও স্বার্থ নেই ইত্যাদি ইত্যাদি। আপনিও হয়তো এমন কথা বহুবার শুনেছেন। এটা জানেন নিশ্চয়ই এই Dolancer-এর কারো রেফারেন্স ছাড়া সদস্য হওয়া যায় না। পুরো এমএলএম, স্বার্থ কোথায় বুঝছেন?
অনেক কিছু বলে ফেললাম। এরপর আপনি কি করবেন সেই সিদ্ধান্ত নিবেন আপনি। আউটসোর্সিং যদি আপনার উদ্দেশ্য হয়ে থাকে তাহলে নিরাপদ ও বিশ্বস্ত পথে আসুন। আপনাদের সবার জন্যে নিরন্তর শুভকামনা।
Share this post :

Post a Comment

Note: Only a member of this blog may post a comment.